কর্পোরেট কর কমানোর ইঙ্গিত অর্থমন্ত্রীর

0
18

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশে কর্পোরেট কর কমানোর ইঙ্গিত দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। আগামী অর্থবছরের বাজেট নিয়ে সোমবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় সম্পাদকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের পর একথা বলেন মুহিত। মন্ত্রী বলেন, ‘… আই শ্যাল কনসিডার র‌্যাশনালাইজেশন। আমাদের করপোরেট করহার অত্যন্ত বেশি।’

২০১৭-১৮ অর্থবছরের বাজেট প্রস্তাবের সময়ও ব্যবসায়ীদের যুক্তি খণ্ডন করে মুহিত বলেছিলেন, “আমরা প্রায়ই বলি যে আমাদের কর্পোরেট করহার খুব বেশি। কিন্তু খুঁটিনাটি পরীক্ষা করে দেখা গেছে যে, সে ধারণা ঠিক নয়।” ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট দেওয়ার আগে সম্পাদকদের সঙ্গে বৈঠকের পর সে অবস্থান থেকে স্পষ্টতই সরে এলেন তিনি। বাংলাদেশে বিভিন্ন স্তরের করহার রয়েছে।বাংলাদেশের কর্পোরেট করহার তুলনামূলক বেশি বলে তা কমাতে ব্যবসায়ীরা বলে আসছিলেন।

এরমধ্যে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান (মার্চেন্ট ব্যাংক ছাড়া) জন্য ৪০ শতাংশ কর এবং অতালিকাভুক্ত ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের জন্য ৪২ দশমিক ৫ শতাংশ। মার্চেন্ট ব্যাংকের জন্য ৩৭ দশমিক ৫ শতাংশ এবং সিগারেট, বিড়ি, জর্দা, গুলসহ সকল প্রকার তামাকজাত পণ্য প্রস্তুতকারী কোম্পানির জন্য ৪৫ শতাংশ কর।

তালিকাভুক্ত মোবাইল ফোন কোম্পানি ৪০ শতাংশ ও অতালিকাভুক্ত মোবাইল ফোন কোম্পানি ৪৫ শতাংশ কর দেয়। পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত পাবলিক লিমিটেড কোম্পানির বিদ্যমান করহার ২৫ শতাংশ এবং অতালিকাভুক্ত কোম্পানির জন্য এই হার ৩৫ শতাংশ।

তিনি বলেন, ‘মাই ইনটেনশন ইজ টু এলিমিনেট সো মেনি লেয়ারস। আইডিয়াল হবে দুইটা রেঞ্জ যদি করতে পারি।আমি নিশ্চিত না। প্রথমদিকে আমি যখন মিনি কেবিনেটে এটা আলোচনা করি, তখন এটার সম্বন্ধে আপত্তি হয়।’ আপত্তির বিষয়টি মাথায় রেখেই এক্ষেত্রে চেষ্টা চালানোর প্রতিশ্রুতি দেন মুহিত। তবে এটা করতে পারবেন কি না, সে বিষয়ে সন্দেহ রয়েছেন তার।

 

সভায় অর্থসচিব ও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানসহ সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে এখানে আপনার নাম লিখুন